বিবিধ উন্নয়ন

: সাঘাটা ও
ফুলছড়ি উপজেলা
শিক্ষা ক্ষেত্রে উন্নয়ন : সাঘাটা ও
ফুলছড়ি উপজেলা
বাস্তবায়নকারী : জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা
অর্থবছর: ২০১২-১৩
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ
গাইবান্ধা কর্তৃক বিশেষ বরাদ্দকৃত অর্থ
থেকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সংস্কার ও
উন্নয়নের লক্ষ্যে মোট ২
কোটি টাকা ব্যয়ে সাঘাটা ও
ফুলছড়ি উপজেলায় মোট ২৩৮টি কার্যক্রম
বাস্তবায়িত হয়। এসব টাকা স্কুল, কলেজ,
মাদ্রাসা, মক্তব, মসজিদ, মন্দির, কবরস্থান,
ঈদগাহ মাঠ সংস্কার জনস্বাস্থ্য উন্নয়ন,
প্রাচির নির্মাণসহ বিভিন্ন উন্নয়ন
কার্যক্রমে ব্যয় হয়। এর মধ্যে ৭৯ লাখ ৭৫
হাজার
টাকা ব্যয়ে শিক্ষা ক্ষেত্রে ৯৩টি কার্যক্রম
বাস্তবায়িত হয়। নিচে বিস্তারিত
তুলে ধরা হলো :
১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভাঙ্গামোর উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
২. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উল্লা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
৩. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভরতখালী উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৪. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভরতখালী বন্দর উচ্চ বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মুক্তিনগর উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কচুয়াহাট উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৭. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কচুয়াহাট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কুন্দপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জুমারবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
১০. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে দই চড়া উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
১১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কামালের পাড়া উচ্চ বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
১২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বোনারপাড়া সিনিয়র
মাদ্রাসা উন্নয়ন করা হয়।
১৩. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কাজী আজহার আলী উচ্চ
বিদ্যালয়ের প্রাচির নির্মাণ করা হয়।
১৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ইসলামিয়া উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
১৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ডিমলা পদুম শহর উচ্চ বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
১৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে নয়াবন্দর উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
১৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে চাকদাতেয়া উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
১৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে পদুমশহর উত্তরপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
১৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভরতখালী প্রতিবন্ধী স্কুল উন্নয়ন
করা হয়।
২০. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জুমারবাড়ী কলেজ উন্নয়ন
করা হয়।
২১. ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সাঘাটা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়
ও কলেজ উন্নয়ন করা হয়
২২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে যাদুরতাইর টেকনিক্যাল কলেজ
উন্নয়ন করা হয়।
২৩. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উদয়ন মহিলা কলেজ উন্নয়ন
করা হয়।
২৪. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে আরিফ রাব্বী পলিটেকনিক্যাল
কলেজ উন্নয়ন করা হয়।
২৫. ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বোনারপাড়া ডিগ্রি কলেজ
উন্নয়ন করা হয়।
২৬. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে হামিদুননেসা বালিকা উচ্চ
বিদ্যালয় উন্নয়ন করা হয়।
২৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে হাটখোলা টেকনিক্যাল
মহিলা কলেজ উন্নয়ন করা হয়।
২৮. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উদাখালী মহিলা কলেজ উন্নয়ন
করা হয়।
২৯. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফুলছড়ি ডিগ্রি কলেজ উন্নয়ন
করা হয়।
৩০. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সৈয়দপুর উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৩১. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফজলে রাব্বী বালিকা বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
৩২. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বুড়াইল মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ও
কলেজ উন্নয়ন করা হয়।
৩৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফুলছড়ি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
৩৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জিগাবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৩৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গুনভরী উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৩৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ওসমানের পাড়া নিম্ন মাধ্যমিক
বিদ্যালয় উন্নয়ন করা হয়।
৩৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গোবিন্দপুর দাখিল
মাদ্রাসা উন্নয়ন করা হয়।
৩৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কানাইপাড়া দাখিল
মাদ্রাসা উন্নয়ন করা হয়।
৩৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে চিরিঙ্গির ভিটা এতিমখানা ও
মাদ্রাসা উন্নয়ন করা হয়।
৪০. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে আফজালুর রাব্বী দাখিল
মাদ্রাসা উন্নয়ন করা হয়।
৪১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে রামনগর আদর্শ
বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৪২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মোমিনুর রহমান মাদ্রাসা উন্নয়ন
করা হয়।
৪৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কুকরাহাট মাদ্রাসা উন্নয়ন
করা হয়।
৪৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে থৈকরেরপাড়া মাদ্রাসা উন্নয়ন
করা হয়।
৪৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভাঙ্গামোড় মাদ্রাসা উন্নয়ন
করা হয়।
৪৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফুলছড়ি সিনিয়র মাদ্রাসা উন্নয়ন
করা হয়।
৪৭. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জমিলা আক্তার উচ্চ বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
৪৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গলাকাটি উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৪৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মানিককর উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৫০. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ছিলমানেরপাড়া মাদ্রাসা উন্নয়ন
করা হয়।
৫১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফজলুপুর চন্দনশহর উচ্চ বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
৫২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মথরপাড়া উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
৫৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কালিরবাজার মডেল কলেজ
উন্নয়ন করা হয়।
৫৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সুজালপুর
হাফিজিয়া মাদ্রাসা উন্নয়ন করা হয়।
৫৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে আবেদা ও
সালমা এতিমখানা উন্নয়ন করা হয়।
৫৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে শিমুলতাইর
রেজিঃ বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
৫৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মাহমুদপুর
ইসলামিয়া মাদ্রাসা উন্নয়ন করা হয়।
৫৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ময়মন্তপুর মাদ্রাসা উন্নয়ন
করা হয়।
৫৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ইটাকুড়ি বালিকা বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
৬০. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কামালের পাড়া কলেজ উন্নয়ন
করা হয়।
৬১. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সানকিভাঙ্গা রেজিঃ বেসরকারি প্রাথমিক
বিদ্যালয় উন্নয়ন করা হয়।
৬২. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে এড়েন্ডাবাড়ীর বিভিন্ন
প্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ সরবরাহ করা হয়।
৬৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে হলদিয়া আইয়ুব ম্যাজিস্ট্রেটের
বাড়ীর মাদ্রাসা সংস্কার করা হয়।
৬৪ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বোনারপাড়ার রাঘবপুরে দারুস
সালাম মাদ্রাসা সংস্কার করা হয়।
৬৫. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কামালের
পাড়া গজারিয়া রেজিঃ বেসরকারি প্রাথমিক
বিদ্যালয় উন্নয়ন করা হয়।
৬৬. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উদাখালী উচ্চ বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৬৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফজলুপুর
রেজিঃ বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়
উন্নয়ন করা হয়।
৬৮. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের হোসেনপুর
রেজিঃ বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের
আসবাবপত্র সরবরাহ করা হয়।
৬৯. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সাঘাটা ইউনিয়নের বিভিন্ন
প্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ সরবরাহ করা হয়।
৭০. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বোনারপাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন
প্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ সরবরাহ করা হয়।
৭১. ৭৫ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে চিথুলিয়া মাদ্রাসা সংস্কার
করা হয়।
৭২. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভরতখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ সরবরাহ
করা হয়।
৭৩. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গজারিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ সরবরাহ
করা হয়।
৭৪. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফুলছড়ি ইউনিয়নের বিভিন্ন
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসবাবপত্র সরবরাহ
করা হয়।
৭৫. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জুমারবাড়ী ইউনিয়নের বিভিন্ন
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ সরবরাহ
করা হয়।
৭৬. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে পদুমশহর ইউনিয়নের বিভিন্ন
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসবাবপত্র সরবরাহ
করা হয়।
৭৭. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কামালের পাড়া ইউনিয়নের
বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ সরবরাহ
করা হয়।
৭৮. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মুক্তিনগর ইউনিয়নের বিভিন্ন
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ সরবরাহ
করা হয়।
৭৯. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফুলছড়ি উপজেলার
উদাখালী আদর্শ বালিকা বিদ্যালয়
সংস্কার করা হয়।
৮০. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উড়িয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন
প্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ সরবরাহ করা হয়।
৮১. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফজলুপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন
প্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ সরবরাহ করা হয়।
৮২. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেঞ্চ সরবরাহ
করা হয়।
৮৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে দক্ষিণ
কঞ্চিপাড়া হাফিজিয়া মাদ্রাসা সংস্কার
করা হয়।
৮৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে আসাদুজ্জামান গার্লস স্কুল ও
কলেজ উন্নয়ন করা হয়।
৮৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গিদারি মন্ডলপাড়া মাদ্রাসা উন্নয়ন
করা হয়।
৮৬. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে রমজানের বাড়ীর
মাদ্রাসা সংস্কার করা হয়।
৮৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সাঘাটা আইডিয়াল স্কুল
সংস্কার করা হয়।
৮৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সাঘাটা শিশু নিকেতন উন্নয়ন
করা হয়।
৮৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উল্যাবাজার আদর্শ শিশু
নিকেতন উন্নয়ন করা হয়।
৯০. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উদয়ন বালিকা বিদ্যালয় উন্নয়ন
করা হয়।
৯১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মোল্লারচর
এবতেদিয়া মাদ্রাসা সংস্কার করা হয়।
৯২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উত্তর ও দক্ষিণ
খাটিয়ামারী বেসরকারি প্রাথমিক
বিদ্যালয় উন্নয়ন করা হয়।
৯৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গটিয়া রাবেয়া নূর ও ফয়জার
রহমান মাদ্রাসা সংস্কার করা হয়।
ধর্মীয় ক্ষেত্রে উন্নয়ন : সাঘাটা ও
ফুলছড়ি উপজেলা
বাস্তবায়নকারী : জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ
গাইবান্ধা কর্তৃক বিশেষ বরাদ্দকৃত অর্থ
থেকে ৩১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ধর্মীয়
ক্ষেত্রে ব্যয় হয়। এ ক্ষেত্রে মক্তব, মসজিদ,
মন্দির, কবরস্থান, ঈদগাহ মাঠ সংস্কারসহ
মোট ৫৫টি উন্নয়ন কার্যক্রম বাস্তবায়িত
হয়। নিচে বিস্তারিত তুলে ধরা হলো :
মসজিদ
১. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উল্যা রেলঘুংটি জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বাবর আলী মাস্টারের
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কুদ্দুস মাস্টারের
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে চিথুলিয়া নজরুল মন্ডলের
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে পূর্ব শিমুলতাইর জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কচুয়া চেয়ারম্যান
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গটিয়া পিছন
পাড়া জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে খামার ধনারুহা মসজিদ সংস্কার
করা হয়।
৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে চিথুলিয়া পুটিমারী জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
১০. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে পদুমশহর সাইদুজ্জামানের
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
১১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে নীলকুঠি ও বালুচর জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
১২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সাকোয়া জামে মসজিদ সংস্কার
করা হয়।
১৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বরতাইর মিন্টুর
বাড়ী জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
১৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে পশ্চিম রাঘবপুর মালেক হাজীর
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
১৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গাছাবাড়ী কেন্দ্রীয় ঈদগাহ
জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
১৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মেছট নুরু হাজীর
বাড়ী জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
১৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে হেলেঞ্চা জব্বার হাজীর
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
১৮. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে পশ্চিম বোনারপাড়ায় মসজিদ ও
মক্তব ঘর সংস্কার করা হয়।
১৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে যাতুরতাইর সাজু প্রিন্সিপালের
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
২০. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে যাতুরতাইর জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
২১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সাঘাটা রাজ্জাকের
বাড়ী জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
২২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভারার দহ জলিলের
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
২৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে খামার পবতনতাইর জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
২৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফুটানি বাজার ও
কাচারী বাজার জামে মসজিদ সংস্কার
করা হয়।
২৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কুমারগাড়ী রফিকুলের
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
২৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভরট পদুম শহর
হাজীপাড়া জামে মসজিদ সংস্কার
করা হয়।
২৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে দক্ষিণ হরিপুর কাবিল মিয়ার
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
২৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে দক্ষিণ গটিয়া জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
২৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে হরিপুর বাদশার
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৩০. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উত্তর কাঠুর রাজ্জাকের
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৩১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গুনভরি জামে মসজিদ সংস্কার
করা হয়।
৩২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গজারিয়া মাদ্রাসা সংলগ্ন
মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৩৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জিয়াডাঙ্গা জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
৩৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গাবগাছি মৌজা খোকা মেম্বারের
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৩৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গলাকাটি জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
৩৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফজলুপুর বাজার জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
৩৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে হানিফপাড়া লিটন মেম্বারের
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৩৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে আব্দুল্লাহ মিয়ার
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৩৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উল্যা সোনাতলা আকন্দ
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৪০. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কামালের পাড়া তালুকদার
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৪১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বোনারপাড়া কলেজ মোড়
জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৪২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কচুয়া রাজ্জাক মহুরীর বাড়ির
মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৪৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গজারিয়া ওয়াদুদের
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৪৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কচুয়া ইউসুফের বাড়ির
জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৪৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে চরের হাট জামে মসজিদ,
(পবনাপুর, পলাশবাড়ি) সংস্কার করা হয়।
৪৬. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গটিয়া মিয়া বাড়ি জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
৪৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে চাকুলি ভিক্ষুর
বাড়ি জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৪৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে পোড়া গ্রাম
মণ্ডলপাড়া জামে মসজিদ সংস্কার
করা হয়।
৪৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে পূর্ব ভাঙ্গামোড় জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
৫০. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে পণ্ডিতপাড়া জামে মসজিদ
সংস্কার করা হয়।
৫১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে শায়েখ আলীর বাড়ির
জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৫২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উদাখালী সাদা মিয়ার বাড়ির
জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৫৩. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বোনারপাড়া ফাইনের বাড়ির
জামে মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৫৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উদাখালী দেলোয়ারের বাড়ির
মসজিদ সংস্কার করা হয়।
৫৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বোনারপাড়া মফু মিয়ার বাড়ির
মসজিদ সংস্কার করা হয়।
মন্দির
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ
গাইবান্ধা কর্তৃক বিশেষ বরাদ্দকৃত
টাকা থেকে সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলায়
৮ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ১৭টি মন্দির
সংস্কার করা হয়। নিচে বিস্তারিত
তুলে ধরা হলো :
০১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কালির বাজার মন্দির সংস্কার
করা হয়।
০২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে নবাবগঞ্জ বাজার মন্দির
সংস্কার করা হয়।
০৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কঞ্চিপাড়া নিখিল বাবুর বাড়ির
মন্দির সংস্কার করা হয়।
০৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বাউসি মন্দির সংস্কার করা হয়।
০৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সন্তোষ বাবুর বাড়ির মন্দির
সংস্কার করা হয়।
০৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভরতখালী কালী মন্দির সংস্কার
করা হয়।
০৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে চিথুলিয়া সূর্য কান্তর বাড়ির
মন্দির সংস্কার করা হয়।
০৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জুমারবাড়ি বাজার দুর্গা মন্দির
সংস্কার করা হয়।
০৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ঝাড়াবর্ষা জেলেপাড়া ভবেসের
বাড়ির মন্দির সংস্কার করা হয়।
১০. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ডাঃ তপনের বাড়ির মন্দির
সংস্কার করা হয়।
১১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বোনারপাড়া সিতলী ও
রঞ্জিতের বাড়ির মন্দির সংস্কার করা হয়।
১২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে দুর্গাপুর কালীতলা ও
পশ্চিমপাড়া মন্দির সংস্কার করা হয়।
১৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভন্নতের বাজার মন্দির সংস্কার
করা হয়।
১৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সাঘাটা বাজার মন্দির সংস্কার
করা হয়।
১৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফুলছড়ি উপজেলার রবিন ও
খগেনের বাড়ির মন্দির সংস্কার করা হয়।
১৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গাইবান্ধা ভি.এইড. রোড
কালী মন্দির সংস্কার করা হয়।
১৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে দলদলিয়া বটতলা মন্দির সংস্কার
করা হয়।
ঈদগাহ
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ
গাইবান্ধা কর্তৃক বিশেষ বরাদ্দকৃত
টাকা থেকে সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলায়
৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ৬ টি ঈদগাহ মাঠ উন্নয়ন
ও সংস্কার করা হয়। নিচে বিস্তারিত
তুলে ধরা হলো :
১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে পেপুলিয়া ঈদগাহ মাঠ উন্নয়ন
করা হয়।
২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে খামার পবন তাইর ঈদগাহ মাঠ
উন্নয়ন করা হয়।
৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বারকোণা ঈদগাহ মাঠ উন্নয়ন
করা হয়।
৪. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গলনা ঈদগাহ মাঠ সংস্কার
করা হয়।
৫. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফজলুপুর ভাটিয়াপাড়া ঈদগাহ
মাঠ সংস্কার করা হয়।
৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কাতলামারী ঈদগাহ মাঠ
সংস্কার করা হয়।
মক্তব
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ
গাইবান্ধা কর্তৃক বিশেষ বরাদ্দকৃত
টাকা থেকে সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলায়
৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ১০টি মক্তব
সংস্কার করা হয়। নিচে বিস্তারিত
তুলে ধরা হলো :
১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে রেজাউল ও হারুন মেম্বারের
বাড়ির মক্তব সংস্কার করা হয়।
২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মজদার ও বজলার মেম্বারের
বাড়ির মক্তব সংস্কার করা হয়।
৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গটিয়া সোহেল ও সেলিমের
বাড়ির মক্তব সংস্কার করা হয়।
৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কামালের পাড়া সেলিম
মেম্বারের বাড়ির মক্তব সংস্কার করা হয়।
০৫. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে হালিমের বাড়ির মক্তব সংস্কার
করা হয়।
০৬. ১ লাখ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফুলছড়ির সিংড়িয়া মক্তব
সংস্কার করা হয়।
০৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে আফতাব মণ্ডলের বাড়ির মক্তব
সংস্কার করা হয়।
০৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মাহবুব ও মোনায়েমের বাড়ির
মক্তব সংস্কার করা হয়।
০৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে খাজা ও জুয়েলের বাড়ির মক্তব
সংস্কার করা হয়।
১০. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ঘুড়িদহ আফজাল ও রফিকুলের
বাড়ির মক্তব সংস্কার করা হয়।
কবরস্থান
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ
গাইবান্ধা কর্তৃক বিশেষ বরাদ্দকৃত
টাকা থেকে সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলায়
১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২টি কবরস্থান
সংস্কার করা হয়। নিচে বিস্তারিত
তুলে ধরা হলো :
১. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জুমারবাড়ি ইউনিয়নের
চেয়ারম্যান বাড়ির কবরস্থান সংস্কার
করা হয়।
২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে রশিদের বাড়ির কবরস্থান
সংস্কার করা হয়।
এতিমখানা
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ
গাইবান্ধা কর্তৃক বিশেষ বরাদ্দকৃত
টাকা থেকে সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলায়
২ লাখ টাকা ব্যয়ে এতিমখানা বিষয়ক
২টি সংস্কার করা হয়। নিচে বিস্তারিত
তুলে ধরা হলো :
১. ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গটিয়া এতিমখানা ও দাতব্য
চিকিৎসালয় সংস্কার করা হয়।
২. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গাইবান্ধা সদর উপজেলার
আমিনা এতিমখানা ও মাদ্রাসা সংস্কার
করা হয়।
জনস্বাস্থ্য ক্ষেত্রে উন্নয়ন:
ফুলছড়ি উপজেলা
বাস্তবায়নকারী : জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা
অর্থবছর : ২০১২-১৩
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ
গাইবান্ধা কর্তৃক বিশেষ বরাদ্দকৃত
টাকা থেকে সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলায়
৩৩ লাখ ২৫ হাজার টাকা ব্যয়ে জনস্বাস্থ্য
বিষয়ক ২০টি উন্নয়ন করা হয়।
নিচে বিস্তারিত তুলে ধরা হলো :
০১. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভরতখালী ইউনিয়নে টিউবওয়েল
সরবরাহ করা হয়।
০২. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভরতখালী ইউনিয়নের
মান্দুরা স্কুলের পাশে ড্রেন নির্মাণ
করা হয়।
০৩. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কচুয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন
স্থানে নলকূপ স্থাপন করা হয়।
০৪. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উদাখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন
স্থানে নলকূপ স্থাপন করা হয়।
০৫. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কামালের
পাড়া ইউনিয়নে টিউবওয়েল সরবরাহ
করা হয়।
০৬. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মুক্তিনগর ইউনিয়নের বিভিন্ন
মৌজায় নলকূপ সরবরাহ করা হয়।
০৭. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গজারিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন
মৌজায় নলকূপ সরবরাহ করা হয়।
০৮. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফুলছড়ি ইউনিয়নের বিভিন্ন
মৌজায় নলকূপ সরবরাহ করা হয়।
০৯. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন
মৌজায় নলকূপ সরবরাহ করা হয়।
১০. ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফজলুপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন
মৌজায় নলকূপ সরবরাহ করা হয়।
১১. ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গজারিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন
মৌজায় রিং স্লিপার সরবরাহ করা হয়।
১২. ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভরতখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন
মৌজায় রিং স্লিপার সরবরাহ করা হয়।
১৩. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উদাখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন
মৌজায় রিং স্লিপার সরবরাহ করা হয়।
১৪. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সাদুল্লাপুর উপজেলার ফরিদপুর
ইউনিয়নে টিউবওয়েল সরবরাহ করা হয়।
১৫. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে এড়েন্ডাবাড়ী ইউনিয়নের
বিভিন্ন স্থানে টিউবওয়েল সরবরাহ
করা হয়।
১৬. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জুমারবাড়ি ইউনিয়নের বিভিন্ন
মৌজায় টিউবওয়েল সরবরাহ করা হয়।
১৭. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উড়িয়া ইউনিয়নে টিউবওয়েল
সরবরাহ করা হয়।
১৮. ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে মুক্তিনগর ইউনিয়নের বিভিন্ন
মৌজায় রিং স্লাব সরবরাহ করা হয়।
১৯. ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সাঘাটা ইউনিয়নের বিভিন্ন
মৌজায় রিং স্লাব সরবরাহ করা হয়।
২০. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে পদুমশহর ইউনিয়নের বিভিন্ন
স্থানে নলকূপ সরবরাহ করা হয়।
এনজিও/ সংগঠন/ সমিতি/ অফিস বিষয়ক
উন্নয়ন
বাস্তবায়নকারী : জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা
অর্থবছর : ২০১২-১৩
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ
গাইবান্ধা কর্তৃক বিশেষ বরাদ্দকৃত
টাকা থেকে সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলায়
৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে এনজিও/
সংগঠন/ সমিতি/ অফিস বিষয়ক ১১ টি উন্নয়ন
করা হয়। নিচে বিস্তারিত তুলে ধরা হলো :
০১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বোনারপাড়া প্রেসক্লাব উন্নয়ন
করা হয়।
০২. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে চিথুলিয়া সাকো অফিস সংস্কার
করা হয়।
০৩. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গজারিয়া ইউনিয়ন অফিস
সংস্কার করা হয়।
০৪. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে বোনারপাড়া ডাকবাংলা সংস্কার
করা হয়।
০৫. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ভরতখালী ইউনিয়নের শেখ
রাসেল স্মৃতি সংসদ উন্নয়ন করা হয়।
০৬. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সোস্যাল ডেভেলপমেন্ট
অর্গানাইজেশন উন্নয়ন করা হয়।
০৭. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে কেরিয়ার ডেভেলপমেন্ট
অর্গানাইজেশন উন্নয়ন করা হয়।
৮. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সোস্যাল ডেভেলপমেন্ট সেন্টার
উন্নয়ন করা হয়।
৯. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে দলদলিয়া মৎস্যজীবী সমবায়
সমিতি উন্নয়ন করা হয়।
১০. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গাইবান্ধা বার লাইব্রেরীর
আসবাবপত্র সরবরাহ করা হয়।
১১. ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফুলছড়ি ইউনিয়ন অফিস সংস্কার
করা হয়।
শিল্প-সংস্কৃতি ও পাঠাগার বিষয়ক উন্নয়ন
বাস্তবায়নকারী : জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ
গাইবান্ধা কর্তৃক বিশেষ বরাদ্দকৃত
টাকা থেকে ২ লাখ টাকা ব্যয়ে শিল্প-
সংস্কৃতি ও পাঠাগার বিষয়ক ২টি উন্নয়ন
করা হয়। নিচে বিস্তারিত তুলে ধরা হলো :
০১. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে গটিয়া আফজালুর রাব্বী ও আরিফ
রাব্বী পাঠাগার সংস্কার করা হয়।
০২. ১ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা মহিলা ভাইস
চেয়ারম্যানের বাড়ির শিল্পী সংগীত
বিদ্যালয় সংস্কার করা হয়।
ক্রীড়া ক্ষেত্রে উন্নয়ন
বাস্তবায়নকারী : জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ
গাইবান্ধা কর্তৃক বিশেষ বরাদ্দকৃত
টাকা থেকে ৪ লাখ টাকা ব্যয়ে সাঘাটা ও
ফুলছড়ি উপজেলার বিভিন্ন
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্রীড়া সামগ্রী সরবরাহ
করা হয়। নিচে বিস্তারিত তুলে ধরা হলো।
০১. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে ফুলছড়ি উপজেলার বিভিন্ন
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্রীড়া সামগ্রী সরবরাহ
করা হয়।
০২. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে সাঘাটা উপজেলার বিভিন্ন
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্রীড়া সামগ্রী সরবরাহ
করা হয়।
কৃষি ক্ষেত্রে উন্নয়ন
২০১২-১৩ অর্থবছরে জেলা পরিষদ কর্তৃক
বিশেষ বরাদ্দকৃত টাকা থেকে সাঘাটার
ভরতখালীর গটিয়ায় ৩ লাখ
টাকা ব্যয়ে কৃষি ক্ষেত্রে ২টি উন্নয়ন
কার্যক্রম বাস্তবায়িত হয়।
নিচে বিস্তারিত তুলে ধরা হলো।
০১. ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে উত্তর গটিয়ায় কৃষি সেচের জন্য
ড্রেন নির্মাণ করা হয়।
০২. ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে দক্ষিণ গটিয়ায় কৃষি সেচ ড্রেন
নির্মাণ করা হয়।
বিদ্যুৎ ক্ষেত্রে উন্নয়ন
০১. ৭৫ হাজার টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা কর্তৃক
ভরতখালী ইউনিয়নের বিভিন্ন
স্থানে বৈদ্যুতিক বাতি সরবরাহ করা হয়।
যোগাযোগ ক্ষেত্রে উন্নয়ন
০১. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা কর্তৃক
চিথুলিয়া সবুজের বাড়ির পাশে কালভার্ট
সংস্কার করা হয়।
যুব ক্ষেত্রে উন্নয়ন
০১. ২ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১২-১৩
অর্থবছরে জেলা পরিষদ, গাইবান্ধা কর্তৃক
পদুমশহর ইউনিয়নের মহিলাদের
মধ্যে সেলাই মেশিন সরবরাহ করা হয়।
বিশেষ উন্নয়ন কার্যক্রম
গত ৫ বছরে মাননীয় সাংসদ এ্যাডভোকেট
মোঃ ফজলে রাব্বী মিয়া ওপরের
কার্যক্রমগুলো ছাড়াও বিশেষ কিছু উন্নয়ন
কার্যক্রম সুসম্পন্ন করেছেন।
ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ
মোঃ দীন মোহাম্মদের
সরাসরি তত্ত্বাবধানে ২০ জন বিশেষজ্ঞ
ডাক্তারের সমন্বয়ে ভরতখালী ইউনিয়নের
গটিয়া মিয়াবাড়ী দাতব্য চিকিৎসালয় ও
এতিমখানার উদ্যোগে তিনি গত ২০১১-১৩
পর্যন্ত ৩ বছরে ৩টি স্বাস্থ্য ক্যাম্পের
কার্যক্রম সুসম্পন্ন করেন। এখানে ৩
বছরে প্রায় ৭ হাজার জটিল রোগীর
চিকিৎসা করা হয়।
এ ছাড়া গত ৪ বছরে হাইকোর্ট থেকে আইন
ব্যবসার মাধ্যমে অর্জিত নিজস্ব আয়
থেকে পতি বছর শীতের সময় চর ও মেইন
ল্যান্ডের ১ লাখ মানুষের মাঝে কম্বল
এবং দুর্গাপূজা ও ঈদুল ফিতরে ১ লাখ ২০
হাজার দরিদ্র নারীর মাঝে শাড়ী বিতরণ
করেন।
পাশাপাশি তিনি সাঘাটা উপজেলাকে ডিজিটাল
বাংলাদেশ-এর আওতায় আনার জন্য
ইউনিয়ন তথ্য সেন্টার ও
বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থার তথ্য
কল্যাণীদের সাথে নিয়মিত
সভা করে নানাভাবে উৎসাহিত করেন
এবং বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেন।
সর্বোপরি, নারী, বৃদ্ধ, শিশুসহ এলাকার
যেসব ব্যক্তি নানা সীমাবদ্ধতার
কার

image

ণে তার কাছে আসতে পারেন না,
তাদের সাথে তিনি স্কাইপে ভিডিও
কনফারেন্সের মাধ্যমে নানা শ্রেণী-
পেশার মানুষের সাথে যোগাযোগ রাখেন।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s